ছবির রং রচনার জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

(PDF) ছবির রং রচনার জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

ছবির রং রচনার জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর: আমরা চারপাশে গাছপালা, লতাপাতা, ফুল-ফল, মাঠ, নদ-নদী, পাহাড়-পর্বত ইত্যাদি দেখি। তাদের রূপ আছে, রং আছে। সেই রূপকে নানা রঙে নিজের মতো যাঁরা আঁকেন তাঁদের আমরা চিত্রশিল্পী বলি।

বিভিন্ন ঋতুতে আমাদের চারপাশের পরিবেশের রূপ ও রং বদলে যায়। চিত্রশিল্পীরা তা-ও তাঁদের ছবিতে রঙে-রেখায় ফুটিয়ে তোলেন। ছবির সেই নানা রং ও রঙের বৈচিত্র্যের কথাই লেখক হাশেম খান তাঁর ‘ছবির রং’ রচনাটিতে ফুটিয়ে তুলেছেন।


ছবির রং রচনার জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন ১। হলুদ ও লাল রং মেশালে কোন রং পাওয়া যায়?
উত্তর : কমলা।

প্রশ্ন ২। কোনটির কারণে আমরা ১২ মাসকে ২ মাস করে ভাঁগ করে নিয়েছি?
উত্তর : প্রকৃতি ও আবহাওয়া।

প্রশ্ন ৩। কোন ঋতুতে সাদা ও স্বচ্ছ নীলের ছড়াছড়ি থাকে?
উত্তর : শরৎকালে।

প্রশ্ন ৪। কখন সবুজ ধানখেতের রং হলুদ হতে শুরু করে?
উত্তর : হেমন্তকালে।

প্রশ্ন ৫। কোন ঋতুতে মানুষের পোশাকে রঙের বৈচিত্র্য আসে?
উত্তর : শীতকালে।

প্রশ্ন ৬। কখন গাছে গাছে সুন্দর ফুল ফোটানোর প্রতিযোগিতা শুরু হয়?
উত্তর : বসন্তকালে।

প্রশ্ন ৭। কোন মাসে মাঠে মাঠে হলুদ বা গেরুয়া রঙের বাহার দেখা যায়?
উত্তর : অগ্রহায়ণ মাসে।

প্রশ্ন ৮। ‘গুলিবিদ্ধ ৭১’ বইটির লেখক কে?
উত্তর : হাশেম খান।

প্রশ্ন ৯। ‘ছবি আঁকা ছবি লেখা’ বইটির লেখক কে?
উত্তর : হাশেম খান।

প্রশ্ন ১০। মৌলিক রং কাকে বলে?
উত্তর : একটি মাত্র রঙে গঠিত রংকে মৌলিক রং বলা হয়।

প্রশ্ন ১১। হাশেম খান প্রতিষ্ঠিত জাদুঘরগুলোর নাম কী?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর ও ঢাকা নগর জাদুঘর।

প্রশ্ন ১২। মৌলিক রং কয়টি?
উত্তর : মৌলিক রং তিনটি।

প্রশ্ন ১৩। আবহাওয়া ও প্রকৃতির কারণে আমরা ১২ মাসকে কয়টি ঋতুতে ভাগ করে নিয়েছি?
উত্তর : ছয়টি ঋতুতে ভাগ করে নিয়েছি।

প্রশ্ন ১৪। বৈশাখ ও জ্যৈষ্ঠ এ দুই মাসকে কোন কাল বলা হয়?
উত্তর : গ্রীষ্মকাল।

প্রশ্ন ১৫। রঙের ঋতু বলা হয় কোন ঋতুকে?
উত্তর : বসন্ত ঋতুকে।


আশাকরি আমাদের আজকের আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লেগেছে। শিক্ষা, পাঠ্যপুস্তক, গল্পের বই সহ যে কোন পিডিএফ ডাউনলোড করতে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের যে কোন আপডেট মিস করতে না চাইলে ফেসবুক ও ইউটিউবে সাবক্রাইব করে আমাদেস দাথে কানেক্ট থাকতে পারেন। ভালো থাকবেন সবাই, ধন্যবাদ।